শিরোনাম:
*** পান্থপথে আসবাব কারখানায় অগ্নিকাণ্ড *** যারা মানবপাচারে জড়িত, তাদের পাশাপাশি অবৈধভাবে যারা যাচ্ছে, তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা: প্রধানমন্ত্রী *** মালয়েশিয়ায় ১শ রোহিঙ্গা অভিবাসীর গণকবরের সন্ধান *** ‘কিসের নির্বাচন, সব ঠান্ডা’ *** ‘ভারতে সালাহ উদ্দিনের বিচার হবে’ *** কামারখন্দে ফের সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ৩ *** এফবিসিসিআই নির্বাচন: চেম্বারে মাতলুব প্যানেলের জয় *** যৌন নিপীড়ন: জাবি ছাত্রলীগের ৫ নেতা আজীবন বহিষ্কার *** সিটি নির্বাচনের মাধ্যমে গণতন্ত্রের ভিত্তি যে মজবুত তা প্রমাণিত: প্রধানমন্ত্রী *** হাসিনা-খালেদা দু’জনই পুরুষ! *** সিরাজগঞ্জে ট্রাক-বাস সংঘর্ষে নিহত ১০ *** পঞ্চমবারের জন্য তামিলনাড়ুর মসনদে জয়ললিতা *** আওয়ামী লীগ সাংসদের আপত্তিকর মন্তব্য, সরকার এখনো নীরব *** মৃত্যুদন্ডপ্রাপ্ত মুজাহিদ কারাগারে যেমন আছেন *** ২৯শে মে সালাহউদ্দিনের জামিন শুনানি
[X]
[X]

যোগাযোগমন্ত্রীর ঘোষণা কর্ণফুলীতে টানেলের কাজ শুরু জানুয়ারিতে

002_68870_0চট্টগ্রাম অফিস : কর্ণফুলী নদীর তলদেশে স্বপ্নের সেই টানেল নির্মাণ হতে যাচ্ছে। আগামী বছরের জানুয়ারি থেকেই এ টানেল নির্মাণ কাজ শুরু করার ঘোষণা দিয়েছেন যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

শুক্রবার নগরীর পতেঙ্গা বিমান বন্দর এলাকায় টানেল নির্মাণের সম্ভাব্য প্রকল্প এলাকা পরিদর্শন শেষে তিনি এ ঘোষণা দেন।

প্রায় সাড়ে তিন কিলোমিটার দীর্ঘ এ টানেল নির্মাণে ব্যয় হবে প্রায় নয় হাজার কোটি টাকা।

মন্ত্রী বলেন, ‘আগামী বছরের জানুয়ারিতে কর্ণফুলী নদীর তলদেশে টানেল নির্মাণের কাজ শুরু হবে এবং  ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে প্রকল্পের কাজ শেষ হবে। টানেল নির্মাণ কাজ শেষ হওয়ার পর চট্টগ্রামের সমৃদ্ধির দ্বার আরো খুলে যাবে।’

কর্ণফুলী নদীর বিমান বন্দর এলাকা থেকে দুই কিলোমিটার নিম্ন স্রোত থেকে টানেল নির্মাণ করা হবে বলেও বলেন জানান মন্ত্রী।

টানেল নির্মাণের কাজ শুরু করতে এরইমধ্যে প্রকল্পের সম্ভাব্যতাও যাচাই করা হয়েছে- উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘চায়না কনস্ট্রাকশন কোম্পানি ও অরুপ নামে দুটি প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে প্রকল্পের সম্ভাব্যতা যাচাই করা হয়েছে। তাদের পরামর্শ অনুযায়ী অ্যালাইনমেন্ট নির্ধারণ করা হয়েছে। তবে প্রয়োজনে সরকার তা সংশোধন করতে পারবে।’

প্রকল্প এলাকা পরিদর্শনকালে মন্ত্রীয় ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে ছিলেন ভূমি প্রতিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোছলেম উদ্দিন আহমদ, স্থানীয় সাংসদ এমএ লতিফ, সীতাকুণ্ডের দিদারুল আলম, চট্টগ্রাম উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের চেয়াম্যান আবদুচ ছালাম, চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মেজবাহ উদ্দিন, মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আজম নাছির, চট্টগ্রাম দক্ষিণ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মফিজুর রহমান প্রমুখ।

যোগাযোগমন্ত্রী আরো বলেন, ‘কর্ণফুলী নদীতে টানেল নির্মাণের ফলে নদীর ওপর যে দুটি ব্রিজ রয়েছে সেগুলোতে বিদ্যমান যানজট কমে যাবে এবং টানেলটি ন্যাশনাল হাইওয়ে ও এশিয়ান হাইওয়ের সঙ্গে সংযুক্ত হবে।’

টানেল নির্মাণে প্রধানমন্ত্রীর আন্তরিকতার কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চীন সফর কর্মসূচিতে অনেকগুলো কর্মসূচি থাকলেও টানেল নির্মাণের বিষয়টি ছিলো না। কিন্তু প্রধানমন্ত্রীর অনুরোধে এ প্রকল্পে অথায়নে আশ্বাস দিয়েছে চীন সরকার। এ থেকেই বোঝা যায় টানেল নির্মাণের ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী কতোটা আন্তরিক।’

Similar articles

Hello Today

Email: [email protected]